শনিবার ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইংল্যান্ড-ওয়েলসে অপরাধ প্রবণতা বেড়েছে

যুক্তরাজ্য অফিস   |   বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪   |   প্রিন্ট   |   8 বার পঠিত

ইংল্যান্ড-ওয়েলসে অপরাধ প্রবণতা বেড়েছে

যুক্তরাজ্যে প্রতিনিয়ত অপরাধ এবং অপরাধের ধরন পাল্টে যাচ্ছে। এ ছাড়া অপরাধের সংখ্যাও বাড়ছে। পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসের রাস্তায় এবং শহরতলিতে ১৬ লাখ সহিংসতা এবং যৌন অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। এ অপরাধের মধ্যে রয়েছে- ব্যক্তির বিরুদ্ধে আক্রমণ, গুরুতর শারীরিক ক্ষতি, ধর্ষণ, যৌন নিপীড়ন প্রভৃতি। সারা দেশে গত বছর প্রায় ৯০০টি স্ট্রিটে ৫২ ধরনের অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। এতে প্রতি সপ্তাহে গড়ে একজন অ্যাটাকের শিকার হয়েছে। তবে শারীরিক আঘাত কিংবা যৌন নির্যাতনের মতো অপরাধগুলো বিপজ্জনক স্ট্রিটগুলোতে সবচেয়ে বেশি সংঘটিত হয়েছে।

মাই লন্ডন অপরাধ প্রবণ এলাকাগুলোর একটি ম্যাপ তৈরি করেছে। এ ম্যাপ ব্যবহার করে কোন এলাকায় কেমন অপরাধ সংঘটিত হয় আপনি সেটা জানতে পারবেন। গত বছর লিডস সিটি সেন্টারের ডানকান স্ট্রিটে বা তার কাছাকাছি ৩৭৮টি সহিংস অপরাধ বা যৌন অপরাধের ঘটনা ঘটেছে। এই হিসাবে এখানে প্রতি ২৩ ঘণ্টায় একটি অপরাধ হয়েছে। যেসব এলাকায় বার, শপ এবং টেকওয়ের কাছাকাছি সে সব এলাকায় অপরাধের মাত্রা বেশি। লিডসের পরে রয়েছে লন্ডনের রেডব্রিজের গুডমায়েস নর্থ স্পোর্টস ফিল্ড বা তার কাছাকাছি এলাকা। এই এলাকায় ৩৩৩টি সহিংসতা বা যৌন অপরাধের ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছে।

এখানে প্রতি ২৬ ঘণ্টায় একটি অপরাধ হয়েছে। তৃতীয় স্থানে রয়েছে গিল্ডফোর্ডের অনস্লো ভিলেজ এবং ইউনিভার্সিটির আশপাশের জেনিন রোড বা তার কাছাকাছি এলাকা। এখানে ৩১২টি অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। কিন্তু পুলিশ বলছে, এই এলাকাটি তুলনামূলকভাবে অপরাধমুক্ত। ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ার পুলিশের লিডস সিটি নেইবারহুড পুলিশিং টিমের প্রধান ইন্সপেক্টর নাতাশা টিয়ার্নি বলেছেন, শহরের কেন্দ্রস্থলে এবং নাইট ইকোনমির কাছাকাছি এলাকাগুলোতে অপরাধের মাত্রা বেশি। সিটির মানুষকে নিরাপদ রাখতে আমরা আমাদের পার্টনার এজেন্সি এবং লাইসেন্সধারীদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছি। প্রতি উইকেন্ডে আমরা বিভিন্ন ধরনের অপারেশন চালিয়ে থাকি। ড্রাগ সাপ্লাই, নাইফ ক্রাইম, সেক্সুয়াল এসাল্টের বিরুদ্ধে আমরা সবচেয়ে বেশি ফোকাস করছি।

Facebook Comments Box

Posted ৪:৪২ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

londonpratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এ বিভাগের আরও খবর

Editor : Naem Nizam